ঝুলন যাত্রা অবিভক্ত বাংলার অন্যতম শ্রেষ্ঠ লোক উৎসব

Share your experience
  • 613
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    613
    Shares

 

"<yoastmark

ঝুলন যাত্রা শুধু বৈষ্ণবদের ধর্মীয় অনুষ্ঠান নয়।অবিভক্ত বাংলার অন্যতম শ্রেষ্ঠ লোক উৎসব।প্রাচীন মন্দির থেকে শুরু করে শিশু কিশোরদের খেলাঘরে এই উৎসবের প্রবেশ অবারিত।লিখছেন-রিয়া দাস।

ঝুলন যাত্রা–বলরামপুজো

শ্রাবণ মাস এলেই ঝুলন ও রাখির কথা মনে পড়ে। ঝুলনপূর্ণিমা উৎসবের একটি অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ শ্রীবলরামের পূজা। শ্রাবণী পূর্ণিমা বলরামের জন্মতিথি রূপে কথিত আছে। সেই কারণে এই তিথিতে রাখীবন্ধন এর আগে শ্রীশ্রী বলভদ্রদেবের পূজা অনুষ্ঠিত হয়। বছরের তিনটি পূর্ণিমা শ্রীকৃষ্ণের লীলা বা যাত্রা বলে আমাদের কাছে পরিচিত। আর এই তিনটি পূর্ণিমা হল দোল পূর্ণিমায় দোলযাত্রা, শ্রাবণ পূর্ণিমাতে ঝুলন যাত্রা, এবং রাসপূর্ণিমাতে লীলা শ্রেষ্ঠ রাসলীলা অনুষ্ঠিত হয়। প্রথম স্পন্দন, দ্বিতীয় হিন্দোল বা আন্দোলন, তৃতীয় নৃত্য বা উল্লাস।

ঝুলন যাত্রা-রাধা কৃষ্ণ

বৈষ্ণব সম্প্রদায়ে শ্রীকৃষ্ণকে ঘিরে প্রতি মাসে এক একটি উৎসব পালিত হয়। যেমন– বৈশাখে চন্দন যাত্রা, জ্যৈষ্ঠে স্নানযাত্রা, আষাঢ়ে রথযাত্রা প্রভৃতি। আর শ্রাবণ মাসে শ্রী কৃষ্ণের বিশেষ উৎসব হল ঝুলন যাত্রা।  গাছের ডালে দোলা ঝুলিয়ে দোল খাওয়ার আনন্দ আমরা সকলেই ছোট বেলায় উপভোগ করেছি। সেই রকম ভাবেই ভারতবর্ষে বহু প্রদেশে এর প্রচলন আছে বহু কাল থেকে।

হিন্দোল

মূলত বৈষ্ণব দের প্রথাগত অনুষ্ঠান হলেও সকল সম্প্রদায়ের মধ্যে এর প্রচলন আছে। শ্রাবণ মাসের শুক্লা একাদশী থেকে পূর্ণিমা পর্যন্ত পাঁচ দিন ধরে এই অনুষ্ঠান পালন করা হয়। সাধারণত রাখী পূর্ণিমার দিন ঝুলনের পরিসমাপ্তি ঘটে। ঝুলনের সংস্কৃত নাম হল হিন্দোল। রাধা কৃষ্ণ বিগ্ৰহ সুসজ্জিত দোলনায় স্থাপন করে দোল দেওয়া হল এই অনুষ্ঠানের প্রধান অঙ্গ।
শাস্ত্র মতে, ঝুলনের দিনে ভগবান শ্রীকৃষ্ণ কদম গাছে ঝোলানো দোলনার পাশাপাশি বসে শ্রীরাধাকে প্রেম নিবেদন করেছিলেন। তাই ঝুলন হল প্রেমের উৎসব। হোলি বা জন্মাষ্টমীর পর বৈষ্ণবদের অন্যতম পবিত্র অনুষ্ঠান এই ঝুলন পূর্ণিমা। ঝুলন পূর্ণিমাকে আবার শ্রাবণীপূর্ণিমা ও বলা হয়।

শ্রীচৈতন্যের ঝুলন উৎসব

বৈষ্ণব ধর্ম সজীব তার ধর্ম, রসের ধর্ম। এই ধর্ম শুষ্ক তার পক্ষপাতী নয়। জীবনকে শুস্ক মরুভূমি করে পরম তত্ব লাভে ভক্তিবাদীরা বিশ্বাসী নন। বৈষ্ণব ধর্ম তাই জীবন ময়মনসিংহ, প্রেমময় ও রসময়। নবদ্বীপের পুরনো মঠে মন্দিরে ঐতিহ্যশালী ঝুলন উৎসব। যেমন মহাপ্রভু মন্দিরে রাধা কৃষ্ণের ঝুলন নয়, হয় শ্রীচৈতন্যের ঝুলন উৎসব।

ঝুলন যাত্রায় অংশগ্রহণ করতে পৃথিবীর বিভিন্ন মানুষ নবদ্বীপ তথা মায়াপুরে যেরকম ভাবে ঝুলন উৎসব পালিত হয় তা আর কোথাও হয় না। কৃষ্ণের বাল্যকাল থেকে কিশোর বয়স পর্যন্ত নানারকম পুতুল দিয়ে সাজানো হয়ে থাকে। এটাই ঝুলনের বিশেষ আকর্ষণ।

আরও পড়ুন–রথযাত্রা উৎসব বাঙালীর বারো মাসের তেরো পার্বণের অন্যতম

ঝুলন যাত্রা–শিশু কিশোরদের খেলাঘরে

গআধুনিক কালে ঝুলনের সেই সাজসজ্জা তে আধুনিকতার ছোঁয়া ও লেগেছে। শিশু এবং কিশোর দের অভিরুচি অনুসারে কোথাও দোলমন্ডপকে ঘিরে ফুটবলের মাঠ, কোথাও আবার গোবর্ধন পর্বতের স্থান করে তুষারাবৃত হিমালয়, আবার কোথাও যমুনা নদী স্বরূপ পরিবর্তন করে হাওড়া ব্রিজ সমন্বিত গঙ্গায় রূপান্তরিত হয়েছে।

তথ্যসূত্র :: স্থানীয় কিছু মানুষ জনের কাছ থেকে অনেক তথ্য পেয়েছি। আনন্দবাজার পত্রিকা।

দেখুন–বলরাম নিয়ে তথ্যচিত্র

 


Share your experience
  • 613
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    613
    Shares

Facebook Comments

Post Author: রিয়া দাস

রিয়া দাস
রিয়া দাস।ইতিহাসে স্নাতকোত্তরে পাঠরত।ক্ষেত্রসমীক্ষক।