পঞ্চসভাই স্থলঙ্গল-নটরাজ শিবের নাচের সঙ্গে জড়িত পাঁচটি মন্দির

Share your experience
  • 275
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    275
    Shares

পঞ্চসভাই স্থলঙ্গল- পাঁচ ধরণের তাণ্ডব নৃত্য_ বডারণ্যেশ্বরার, থিরুবাড়ুর

শিবঠাকুরের খোঁজে পঞ্চভূতলিঙ্গম, আথারা লিঙ্গম এবং দক্ষিণ কাশীর পর আমরা এখন যাবো পঞ্চসভাই স্থলঙ্গল, অর্থাৎ নটরাজ শিবের নাচের সঙ্গে জড়িত পাঁচটি মন্দিরে। এই পাঁচটি মন্দিরই তামিলনাডুতে। শিব নৃত্যকলার অধীশ্বর, নটরাজ। তাঁর দেহের ছন্দে ফুটে ওঠে সৃষ্টি-স্থিতি-সংহারের বোল। নটরাজের নাচকে বলা হয় Cosmic dance, এবং এই নাচের অন্তর্নিহিত ছন্দের কিছু অসাধারণ বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা বিখ্যাত অস্ট্রিয়ান-আমেরিকান পদার্থবিজ্ঞানী Fritjof Kapra তাঁর বিশ্ববিখ্যাত বেস্ট সেলার বই ‘The Tao of Physics’-য়ে বিস্তারিত ভাবে বর্ণনা করেছেন, যদিও তাঁর থিওরি যথেষ্ট বিতর্কিত। ‘The Tao of Physics’ নিয়ে আলোচনা করা এই নিবন্ধে সম্ভব নয়। উৎসাহীরা বইটি পড়ে দেখতে পারেন। অনেক নতুন চিন্তার কথা জানতে পারবেন। আমরা এখানে শুধুমাত্র নটরাজের নৃত্যের সঙ্গে জড়িত মন্দিরগুলি দর্শন করব। লিখছেন–আশিস কুমার চট্টোপাধ্যায়

পঞ্চসভাই স্থলঙ্গল : নটরাজ ও তাণ্ডব নৃত্য

সাধারণ ভাবে তাণ্ডব নৃত্যের সঙ্গে নটরাজের নাম ওতপ্রোত ভাবে জড়িয়ে থাকলেও তাণ্ডব নৃত্য কিন্তু শুধুমাত্র নটরাজরূপী শিবের নাচ নয়, বরং তাণ্ডব নৃত্যকে দেবনৃত্যই বলা চলে, কারন নটরাজ ছাড়াও অন্য দেবদেবীরাও তাণ্ডব নাচ নেচেছেন বা নাচেন। একটি পরিচিত উদাহরণ হল কালীয়দমনের সময় শ্রীকৃষ্ণ কালীয়নাগের মাথায় যে নাচ নেচেছিলেন, সেই নাচটিও ছিল তাণ্ডব নৃত্য। গণেশের সঙ্গেও তাণ্ডব নৃত্য জড়িয়ে আছে (অষ্টভূজ গণেশের তাণ্ডব নৃত্যরত মূর্তি বহু মন্দিরে আছে)। জৈন শাস্ত্র অনুসারে দেবরাজ ইন্দ্র ঋষভদেবকে তাণ্ডবনৃত্য দেখিয়েছিলেন।

 তাণ্ডব কথাটি শিবের বাহন নন্দীর অপর নাম ‘তণ্ডু’ থেকে এসেছে। শাস্ত্রে অনেক রকমের তাণ্ডব নৃত্যের কথা বলা হয়েছে, তার মধ্যে প্রধান হল সাতটি — কালী, সন্ধ্যা, ত্রিপুর, আনন্দ, উমা, সংহার ও ঊর্ধতাণ্ডব। এই বিভিন্ন ধরণের তাণ্ডব নৃত্যের বিবরণ ও ব্যাখা নাট্যশাস্ত্র এবং অন্য বিভিন্ন শাস্ত্র যেমন ‘অংশুমাড়ভেদ আগম’ এবং ‘উত্তরকামিকা আগম’-য়ে করা হয়েছে। সে সম্বন্ধে আলোচনা করা বর্তমান লেখকের জ্ঞান ও ক্ষমতার বাইরে এবং তা বর্তমান নিবন্ধের উদ্দেশ্যও নয়। এখানে আমরা এগুলি শুধুমাত্র ছুঁয়ে যাচ্ছি। যাঁরা এই সাত রকমের তাণ্ডব নৃত্য নিয়ে আর একটু বিস্তারিত ভাবে জানতে চান, তাঁরা এই লিংকে দেখতে পারেন : https://www.wisdomlib.org/hinduism/book/tevaram-religion-and-philosophy/d/doc421162.html

উত্তর গোপুরম,মীনাক্ষী মন্দির, মাদুরাই

পঞ্চসভাই স্থলঙ্গল : কোথায়

পঞ্চসভাই স্থলঙ্গলের পাঁচটি মন্দিরই তামিলনাড়ুতে। এই মন্দিরগুলি হল :-

১) রত্ন সভাই — থিরুভলানগাডু বডারণ্যেশ্বরার মন্দির — চেন্নাই শহরের কাছে; ভৌগোলিক কো-অর্ডিনেট ১৩.০৭ ডিগ্রী নর্থ, ৭৯.৪৬ ডিগ্রী ইস্ট।

২) কনক সভাই — থিল্লাই নটরাজা মন্দির — চিদাম্বরম — ভৌগোলিক কো-অর্ডিনেট ১১.৪ ডিগ্রী নর্থ, ৭৯.৭ ডিগ্রী ইস্ট।

৩) ভিলি (রজত) সভাই — মীনাক্ষী আম্মান মন্দির — মাদুরাই — ভৌগোলিক কো-অর্ডিনেট ৯.৫৫ ডিগ্রী নর্থ, ৭৮.০৭ ডিগ্রী ইস্ট।

৪) থামিরা (তাম্র) সভাই — নেল্লাইআপ্পার মন্দির — তিরুনেলভেলি — ভৌগোলিক কো-অর্ডিনেট ৮.৭২ ডিগ্রী নর্থ, ৭৭.৬৮ ডিগ্রী ইস্ট।

৫) চিথিরা (চিত্র) সভাই — কুট্রালানাথার মন্দির — থিরুকুটাচলম (কোট্রালাম), তেনকাশী — ভৌগোলিক কো-অর্ডিনেট ৮.৫৫ ডিগ্রী নর্থ, ৭৭.১৬ ডিগ্রী ইস্ট।

‘ত্রিপুর’ তাণ্ডব (চিত্র সভা)

খেয়াল করে দেখুন, এই পাঁচটি মন্দিরের মধ্যে দু’টির (থিরুভলানগাডু বডারণ্যেশ্বরার মন্দির এবং থিল্লাই নটরাজা মন্দির — চিদাম্বরম ) অবস্থান ৭৯ ডিগ্রী ইস্ট লঙ্গিচ্যুডে। হিন্দু মন্দির ও তীর্থস্থানের সঙ্গে ৭৯ ডিগ্রী ইস্ট লঙ্গিচ্যুডের রহস্যময় সম্পর্ক নিয়ে পরে অন্য জায়গায় আলোচনা করা হবে।

কুট্রালানাথার মন্দির, থিরুকুট্রালাম

পঞ্চসভাই স্থলঙ্গল : পৌরাণিক কাহিনী

পৌরাণিক কাহিনী অনুসারে শিব একবার স্বর্গে নটরাজ রূপে তন্ময় হয়ে নাচ করছিলেন। তখন তাঁর পায়ের নুপূর থেকে একটি রত্ন খসে মর্তে পড়ে যায়। মর্তে পড়ে সেই রত্নটি পাঁচ টুকরো হয়ে পাঁচ জায়গায় ছড়িয়ে পড়ে। সেই পাঁচটি জায়গাই হল পঞ্চসভাই স্থলঙ্গল।

আবার অন্য একটি কাহিনী অনুসারে শিব নটরাজ রূপে মর্তের পাঁচটি জায়গায় পাঁচ রকমের তাণ্ডব নৃত্য করেছিলেন। সেই পাঁচটি জায়গাই হল পঞ্চসভাই স্থলঙ্গল বা স্থলম।

এছাড়া বিভিন্ন পঞ্চসভাই স্থলমের সঙ্গে অন্য পৌরাণিক কাহিনীও জড়িয়ে আছে, সেগুলি যথাসময়ে বলা হবে।

‘সন্ধ্যা’ তাণ্ডব (রজত সভা)

পঞ্চসভাই স্থলঙ্গল : নটরাজের নৃত্যভঙ্গিমা

বলা হয় যে পাঁচটি পঞ্চসভাই স্থলঙ্গলে নটরাজ পাঁচ ধরণের তাণ্ডব নৃত্য নেচেছিলেন। এগুলি হল :

১)  ‘রত্ন সভাই’ থিরুভলানগাডুর বডারণ্যেশ্বরার মন্দিরে ‘কালী’ (‘ঊর্ধ’ তাণ্ডব) তাণ্ডব ।

২) ‘কনক সভাই’ চিদাম্বরমের থিল্লাই নটরাজা মন্দিরে ‘আনন্দ’ তাণ্ডব (নটরাজের যে বিশ্ববিখ্যাত মূর্তিটা আমরা চিনি, তা এই আনন্দ তাণ্ডব নৃত্যরত মূর্তি)।

৩) ‘ভিলি (রজত) সভাই’ মাদুরাইয়ের মীনাক্ষী আম্মান মন্দিরে ‘সন্ধ্যা’ তাণ্ডব।

৪) ‘থামিরা (তাম্র) সভাই’ তিরুনেলভিলির নেল্লাইআপ্পার মন্দিরে ‘মুনি’বা ‘ব্রহ্ম’ (জ্ঞান) তাণ্ডব (কোথাও কোথাও বলা হয়েছে ‘গৌরী’ তাণ্ডব)।

৫) ‘চিথিরা (চিত্র) সভাই’ থিরুকুট্রালামের কুট্রালানাথার মন্দিরে ‘ত্রিপুর’ তাণ্ডব।

‘আনন্দ’ তাণ্ডব (কনক সভা)

পঞ্চসভাই স্থলঙ্গল : বিভিন্ন মন্দিরসমূহ

পঞ্চসভাই স্থলঙ্গল সম্বন্ধে প্রাথমিক ধারণার পরে এবার আমরা পঞ্চসভাই স্থলঙ্গলের পাঁচটি মন্দিরের খুব সংক্ষিপ্ত পরিচয় জানব। পরে আলাদা করে মন্দিরগুলি নিয়ে আলোচনা করা হবে। এখানে একটু ব্যক্তিগত কথা বলি। নটরাজ শিবের অসীম কৃপায় বর্তমান লেখক এই অধমের এই পাঁচটি মন্দিরই দর্শন হয়েছে।

১) রত্ন সভাই বডারণ্যেশ্বরার মন্দির, থিরুভলানগাডু

চেন্নাই শহর থেকে ৬৪ কিলোমিটার দূরে থিরুভালুর জেলায় চেন্নাই-আরাক্কুরাম সাবার্বান ট্রেন রুটের শেষ স্টেশন আরাক্কুরামের আগের স্টেশন হল থিরুভলানগাডু। স্টেশন থেকে পাঁচ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত রত্ন সভাই বডারণ্যেশ্বরার মন্দির। বর্তমান মন্দিরটি চোল রাজত্বকালে খৃষ্টীয় ১২শ শতকে নির্মিত হলেও এর খোঁজ খৃষ্টীয় ৫ম শতকেও পাওয়া যায়।

পূর্ব গোপুরম, থিল্লাই নটরাজ মন্দির

এখানে শিব বডারণ্যেশ্বর (তামিলে বড়ারণ্যেশ্বরার) এবং পার্বতী ভন্দরকুঝালাই আম্মান রূপে অধিষ্ঠিত।

এই মন্দিরের ‘স্থলবৃক্ষ’ (Temple tree) হল বটগাছ। বলা হয় আগে এ জায়গায় বট গাছের অরণ্য বা জঙ্গল ছিল। সেই জন্য এই জায়গাটির নাম থিরুবলানগাডু (থিরু = পবিত্র বা মহান +আলম = বটগাছ + কাডু = বন) । শিব সেই বটের অরণ্যে অধিষ্ঠিত বলে তাঁর পরিচিতি বড়ারণ্যেশ্বর নামে।

আগেই বলা হয়েছে নটরাজ এই মন্দিরে ‘কালী’ তাণ্ডব নৃত্য করেছিলেন। এই নিয়ে একটি আকর্ষণীয় পৌরানিক কাহিনী আছে, যা আমরা পরে শুনব।

এই মন্দিরে নৃত্যরত নটরাজের পা থেকে খসে পড়া রত্ন (চুণি বা পান্না) পড়েছিল, তাই এ হল ‘রত্ন সভাই’, অর্থাৎ রত্ন সভা।

‘কালী’ তাণ্ডব (রত্ন সভা)

পরে আমরা এই মন্দিরটি সম্বন্ধে বিস্তারিত বিবরণ শুনব।

২) কনক সভাই চিদাম্বরমের থিল্লাই নটরাজা মন্দির

পঞ্চসভাই স্থলমের দ্বিতীয় ‘স্থলম’ হল চিদাম্বরমের থিল্লাই নটরাজা মন্দির। এই মন্দিরটি হল পঞ্চসভার ‘কনক সভা’। এই মন্দিরে নটরাজ ‘আনন্দ’ তাণ্ডব নৃত্য করেছিলেন। এই মন্দিরের গর্ভগৃহের কাছে সোনার ছাদওলা একটি মণ্ডপ সেই কনক সভার প্রতীক।

এই মন্দির সম্বন্ধে বর্তমান “শিবঠাকুরের খোঁজে” সিরিজের ‘পঞ্চভূতলিঙ্গম’ পর্যায়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।

৩) ভিলি (রজত) সভাই মাদুরাইয়ের মীনাক্ষী আম্মান মন্দির

মাদুরাইয়ের বিশ্ববিখ্যাত মীনাক্ষী আম্মান মন্দিরে যাননি এমন বাঙালি পর্যটক নেই বললেই চলে। কিন্তু এই মন্দিরে সুন্দরেশ্বর শিব একটি বড় আকারের সম্পূর্ণ রূপোর তৈরী মন্দিরে নটরাজ রূপে অধিষ্ঠিত আছেন, এবং সেই রূপোর মন্দিরটিই যে পঞ্চসভাই স্থলমের তৃতীয় সভাই ‘ভিলি/রজত সভা’ তা অনেকেই জানেন না বা খেয়াল করেন না।

আগেই বলা হয়েছে মীনাক্ষী আম্মান মন্দিরের ভিলি (রজত) সভাইতে নটরাজ-রূপী শিব ‘সন্ধ্যা’ তাণ্ডব নৃত্য করেন।

পরে আমরা এই মন্দিরটি সম্বন্ধে বিস্তারিত বিবরণ শুনব।

৪) থামিরা (তাম্র) সভাই : তিরুনেলভেলির নেল্লাইআপ্পার মন্দির

পঞ্চসভাই স্থলমের চতুর্থ ‘স্থলম’ হল তিরুনেলভেলির নেল্লাইআপ্পার মন্দির। তিরুনেলভেলি শহরে থামিরাবরণী (তাম্রবর্ণী) নদীর উত্তর তটে অবস্থিত পাণ্ড্য ও চোল রাজাদের হাতে নির্মিত এই মন্দিরটির প্রাথমিক নির্মাণকার্য ৭০০ খৃ্ষ্টাব্দে শেষ হয়। খৃষ্টীয় ৭ম শতাব্দির বিখ্যাত তামিল ধর্মগ্রন্থ ‘তেভরম’-য়ে এই মন্দিরটির উল্লেখ আছে।

শিব এখানে ‘নেল্লাইআপ্পার’ বা ‘বেণুবননাথার’ নামে অধিষ্ঠিত। বলা হয় যে আগে এখানে বেণু অর্থাৎ বাঁশ গাছের জঙ্গল ছিল। শিব সেই বেণুবনে অধিষ্ঠিত, তাই তিনি বেণুবনেশ্বর বা বেণুবননাথ (তামিলে বেণুবননাথার)। পার্বতী এখানে কান্তিমতী আম্মান।

এই মন্দিরের একটি মণ্ডপের ছাদ তামা দিয়ে মোড়া।

আগেই বলা হয়েছে যে এই মন্দিরে নটরাজ ‘মুনি’ তাণ্ডব নৃত্য করেছিলেন।পরে আমরা এই মন্দিরটি সম্বন্ধে বিস্তারিত ভাবে শুনব।

রত্নসভাই_ বডারণ্যেশ্বরার

৫) চিথিরা (চিত্র) সভাই : থিরুকুট্রালামের কুট্রালানাথার মন্দির

পঞ্চসভাই স্থলমের পঞ্চম ‘স্থলম’ হল তেনকাশী জেলায় তেনকাশী থেকে পাঁচ কিলোমিটার দূরে পাহাড় আর ঝর্ণা ঘেরা সুন্দর ছোট জনপদ থিরুকুট্রালাম বা থিরুকুটাচলমে (অ্যাংলিসাইজড ভার্সন Courtalam) অবস্থিত কুট্রালানাথার মন্দির। চোল ও পাণ্ড্য রাজাদের প্রতিষ্ঠিত এই মন্দিরটি শঙ্খের আকৃতির বলে এই মন্দিরটিকে ‘শঙ্খকোভিল’ বলা হয়।

শিব এখানে ব্রহ্মা ও বিষ্ণুর সঙ্গে যুগ্ম ভাবে আছেন। তাঁর পরিচিতি ‘কুট্রালানাথ’ (তামিলে কুট্রালানাথার) নামে। আম্বাল অর্থাৎ পার্বতী এখানে কুঝালভই মোঝিআম্মাই।।

এই মন্দিরটি থেকে প্রায় ৫০০ মিটার দূরে একটি মণ্ডপ হল ‘চিথিরা সভাই’ অর্থাৎ চিত্র সভা। মণ্ডপটির সমস্ত ভিতরের দেওয়াল জুড়ে আঁকা আছে অজস্র রঙিন ম্যুরাল। পৌরাণিক কাহিনীর কী নেই সেই ছবির শোভাযাত্রায়! মুগ্ধ বিস্ময়ে অবাক হয়ে তাকিয়ে থাকতে হয় চিত্রসভার সেই চিত্ররাশির দিকে। তবে দুঃখের কথা, ফটো তোলা কঠোর ভাবে নিষিদ্ধ। তার উপর মণ্ডপটির গড়ণ এমনই যে বাইরে থেকে কিছুতেই ভিতরের ফটো তোলা যায় না। চিত্রসভার অপরূপ চিত্রের সমাহার দেখতে হলে আপনাকে তাই থিরুকুট্রালাম যেতেই হবে।

তাম্রসভা, নেল্লাইআপ্পার মন্দির

 আরও পড়ুন- প্রকাশা – দক্ষিণ কাশী দ্বিতীয় শিবঠাকুরের আপন দেশে

আগেই বলা হয়েছে যে এই মন্দিরে নটরাজ ‘ত্রিপুর’ তাণ্ডব নৃত্য করেছিলেন।পরে আমরা এই মন্দিরটি সম্বন্ধে বিস্তারিত বিবরণ শুনব।

পঞ্চসভাই স্থলঙ্গল : উপসংহার

শিবঠাকুরের খোঁজে আমাদের পঞ্চসভাই স্থলঙ্গল সম্বন্ধে কিছু জানা হল। এর পরে আমরা পঞ্চসভাই স্থলঙ্গলের মন্দিরগুলি সম্বন্ধে একটু বিস্তারিত ভাবে জানবো।

The Tao of Physics
কালীয়দমন – টেরাকোটা_ লক্ষ্মীজনার্দন মন্দির, দেবীপুর

ঋণ স্বীকার :

১) উইকিপিডিয়া সহ বিভিন্ন ইন্টারনেট সাইট।

২) ‘The Tao of Physics’ – Fritjof Capra.

ফটো : লেখক।


Share your experience
  • 275
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    275
    Shares

Facebook Comments

Post Author: আশিস কুমার চট্টোপাধ্যায়

asish chottopadhyay
আশিস কুমার চট্টোপাধ্যায় (জন্ম ১৯৫৬) দুর্গাপুরের একজন প্রতিথযশা স্ত্রীরোগবিশেজ্ঞ। দুর্গাপুর ইস্পাত কারখানার হাসতালে ৩২ বছর অত্যন্ত সুনামের সঙ্গে চাকরি করার পর এখন উনি সম্পূর্ণ ভাবে গরীব ও দুস্থ রোগীদের সেবায় নিজেকে নিযুক্ত রেখেছেন। দেশভ্রমণ, ফটোগ্রাফি এবং বিভিন্ন বিষয়ে ইংরেজি ও বাংলায় লেখালেখি করা ওঁর নেশা। দেশ-বিদেশের বিভিন্ন পত্র-পত্রিকা এবং বইতে ওঁর তোলা ফটো প্রকাশিত হয়েছে। বাংলায় লেখা ওঁর দুটি ব্যতিক্রমী উপন্যাস, একটি ছোটগল্প-সংগ্রহ, একটি কবিতার বই , একটি ছড়ার বই ও দুটি ভ্রমণকাহিনী আছে, যার মধ্যে একটি উপন্যাস (চরৈবেতি) দুবার আনন্দবাজার পত্রিকার বেস্ট সেলার লিস্টে স্থান পেয়েছিল। ইংরেজিতে ভারতের বিভিন্ন তীর্থস্থান ও মেলা নিয়ে লেখা ওঁর শতাধিক ব্লগের প্রায় দেড় লক্ষ ভিউ আছে। বাংলার মন্দিরের উপর ওঁর ইংরেজিতে লেখা একটি গবেষণাধর্মী প্রায় দুহাজার রঙিন ফটোসমৃদ্ধ ফটোগ্রাফিক ই-বুক আছে, যেটি সাধারণ মানুষ, যাঁরা মন্দির ভালোবাসেন কিন্তু খুব পাণ্ডিত্যপূর্ণ লেখা পড়তে চান না, তাঁদের জন্য লেখা।।

1 thought on “পঞ্চসভাই স্থলঙ্গল-নটরাজ শিবের নাচের সঙ্গে জড়িত পাঁচটি মন্দির

Comments are closed.